ঘুম থেকে ওঠার পর হঠাৎ মাথা ব্যথা কেন হয়? সাম্ভবব্য ৫ টি কারণ জেনে নিন

0

ঘুম থেকে ওঠার পর সবাই সতেজ বোধ করে না। অনেকেই আছেন যারা এক ধরনের অস্বস্তিতে চোখ খোলেন। ঘুম থেকে উঠলে প্রচণ্ড মাথাব্যথা, চোখে ব্যথা, বমি বমি ভাব ও বমি হয়। মাইগ্রেন এবং উচ্চ রক্তচাপে আক্রান্ত ব্যক্তিরা বেশিরভাগই এই ধরনের সমস্যায় ভোগেন।

ঘুম থেকে ওঠার পর হঠাৎ মাথা ব্যথা কেন হয়? সাম্ভবব্য ৫ টি কারণ জেনে নিন

অনেক সময় এই যন্ত্রণা নিয়ে কাজ করা বা ঘর সামলানো সম্ভব হয় না। ঘুম থেকে ওঠার পর হঠাৎ এই মাথা ব্যথার বেশ কিছু কারণ রয়েছে। সুতরাং, যদি এটি ঘটে তবে আপনার অবিলম্বে একজন ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করা উচিত। জেনে নিন সকালের মাথাব্যথার সম্ভাব্য ৫ টি কারণ-

১। নিদ্রাহীনতা

স্লিপ অ্যাপনিয়া বা নিদ্রাহীনতা হল ঘুমের সময় শ্বাস-প্রশ্বাসের ব্যাধি। এছাড়াও নাক ডাকা, শুকনো গলা, ঘুমের সময় ঘন ঘন প্রস্রাব হওয়া স্লিপ অ্যাপনিয়ার লক্ষণ। 

এই সমস্যা ঘুমের ব্যাঘাত ঘটায়। যে কারণে সকালে মাথাব্যথা শুরু হয়।


২। মাইগ্রেনও এর কারণ হতে পারে মাথা ব্যাথা

মাইগ্রেন সকালের মাথাব্যথার অন্যতম কারণ হতে পারে। বিশ্বের প্রায় 10 শতাংশ মানুষ মাইগ্রেনে ভোগেন। মাইগ্রেন হলে দৃষ্টি খারাপ হয়ে যায়।

ছাড়া ক্লান্তি ঘিরে ধরে। বিশেষ করে সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর এই ব্যথা শুরু হয়। যাইহোক, লক্ষণ সবার জন্য এক নয়। বরং ভিন্ন হতে পারে।


৩। হ্যাংওভার

অ্যালকোহল পান করা একটি স্বাস্থ্যকর অভ্যাস নয়। এই কারণে, বিভিন্ন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া হতে পারে।

রাতে পান করলে পরদিন সকালে মাথাব্যথা হতে পারে। রাতে ঘন ঘন পিপাসা, দ্রুত হার্টবিট, ক্লান্তি ইত্যাদি হ্যাংওভারের কারণে হতে পারে।


৪। দৃষ্টি সমস্যা

ঠান্ডা মাথাব্যথা এবং ঘন ঘন মাথাব্যথার মধ্যে একটি বড় পার্থক্য রয়েছে। এটি দৃষ্টি সমস্যার কারণেও হতে পারে।

মাথাব্যথার সাথে সাথে আপনার দৃষ্টি ঝাপসা বা জলাবদ্ধ চোখ থাকলে সতর্ক থাকুন। অবিলম্বে ডাক্তারের পরামর্শ নিন।


৫। আপনার যদি স্নায়বিক সমস্যা থাকে

মস্তিষ্কে স্নায়বিক সমস্যা থাকলেও সকালে মাথাব্যথার সমস্যা দেখা দিতে পারে। অজ্ঞান হওয়া বা চোখ কালো হওয়া অস্বাভাবিক নয়।

মাথাব্যথার পাশাপাশি ঘাড় ব্যথা, বমি বমি ভাব বা বমিও হতে পারে। যাইহোক, এই লক্ষণগুলি মাইগ্রেনের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। মাথার পিছনে ঘন ঘন যন্ত্রণাদায়ক ব্যথাও টিউমারের লক্ষণ হতে পারে।

মাঝে মাঝে মাথাব্যথা হলে সতর্ক থাকুন। চিকিৎসা নির্ভর করে মাথাব্যথার ধরন এবং কতক্ষণ স্থায়ী হয় তার উপর।

তাই ধরনের সমস্যা দেখা দিলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। স্ব-ঔষধ করবেন না। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া কোনো ওষুধ খাবেন না। সচেতন থাকুন, সুস্থ থাকুন।


আমাদের কথা

সুস্থ্যই জীবনের মূল্যবান সম্পদ। কেননা কোন ব্যক্তি সুস্থ্য না থাকলে তার বেচে থাকাই কষ্টকর। আর সুস্থ থাকলে হলে নিয়ম মাফিক জীবন পরিচালনা করতে হবে। আর খাবারের প্রতি বিশেষ নজর দিতে হবে। কেননা খাবারই আপনার দেহে শক্তি যোগাবে এবং সুস্থ রাখবে।

সেই সাথে এমন খাবারের প্রতি বিশেষ দৃষ্টি দিতে হবে যে খাবার গুলো শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। আর মাথা ব্যথা বড় ধরণের কোন রোগ নয়। তাই যে কোন ধরণের মাথা ব্যথা হলে ঘাবরে যাবেন না।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ
একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)
Top